বইয়ে খোঁজার সময় নাই
সব কিছু এখানেই পাই

ভাবসম্প্রসারণ : স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল

স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল

মূলভাব : শরীর ভল না থাকলে মন ভাল থাকে না এবং মন ভাল না থাকলে প্রকৃত সুখ-শান্তি পাওয়া যায় না। শারীরিক সুস্থতার নামই স্বাস্থ্য। স্বাস্থ্য এক অমূল্য সম্পদ। ভগ্ন বা রুগ্ন শরীর যার, তার পক্ষে সুখ ও সন্তোষ লাভ করা অসম্ভব।

সম্প্রসারিত-ভাব : শরীরের সঙ্গে মনের সম্পর্ক অবিচ্ছেদ্য। সুস্থ দেহে সুন্দর মন। সুন্দর ও উৎফুল্ল মনেই সুখ বিরাজ করে। শরীর ভাল না থাকিলে মন-মেজাজ ঠিক থাকে না, কাজ কর্মে সৎসাহ-উদ্দিপনা থাকে না। মনোযোগ ও আগ্রহ না থাকলে কোন কাজ সুষ্ঠুভাবে সমাধা করা যায় না। অথচ সুখ লাভের জন্য কর্মে সাফল্য লাভ একান্ত আবশ্যক।
অপরের সঙ্গে ভাল আচরণ করা এবং সমাজ-সংসারের নিজ দায়িত্ব পালন করা মানুষের কর্তব্য। যাদের শরীর রোগাক্রান্ত বা দুর্বল তাদের পক্ষে এই দায়িত্ব পালন সম্ভব হয় না। তাদের মেজাজ খিট্খিটে থাকে এবং তারা সব কিছুতে বিরক্তি বোধ করে। সর্বদা মন-মরা হয়ে বিষন্ন বেদনায় কাটায়। তাদের মনে আনন্দ-উল্লাসের সঞ্চার ঘটে না। বিশ্বের অপার আনন্দ-উপকরণ তাদের প্রভাবিত করতে পারে না।
অসুস্থ ব্যক্তি আলাপে আনন্দ পায় না, আহারেও আনন্দ পায় না।
স্বাস্থ্য রক্ষার জন্য প্রয়োজন নিয়মিত ব্যায়াম, পরিমিত পুষ্টিকর আহার, সচেতনতা ও পরিচ্ছন্নতা। সুন্দরভাবে জীবন-যাপন করার জন্য প্রচুর লেখা-পড়া করা ও ভাল কাজ করা একান্ত দরকার। স্বাস্থ্য ভাল থাকলেই আমরা তা করতে সক্ষম হবো।

প্রকৃত আনন্দ ও সুখ-সমৃদ্ধি অর্জনের জন্য নিজ নিজ স্বাস্থ্য-রক্ষায় যতœবান হওয়া আমাদের উচিৎ।


আরো ভালো ভাবে শিখার জন্য একই ভাবসম্প্রসারণ অন্য বই থেকেও সংগ্রহ করে দেয়া হলো:


শরীর ভাল না থাকিলে মন ভালো থাকে না এবং মন ভাল না থাকিলে প্রকৃত সুখ-শান্তি পাওয়া যায় না।

শারীরিক সুস্থতার নামই স্বাস্থ্য। স্বাস্থ্য এক অমূল্য সম্পদ। ভগ্ন বা রুগ্ন শরীর যাহার, তাহার পক্ষে সুখ ও সন্তোষ লাভ করা অসম্ভব।

শরীরের সঙ্গে মনের সম্পর্ক অবিচ্ছেদ্য। সুস্থ দেহে সুন্দর মন। সুন্দর ও উৎফুল্ল মনেই সুখ বিরাজ করে। শরীর ভাল না থাকিলে মন-মেজাজ ঠিক থাকে না, কাজ কর্মে উৎসাহ-উদ্দিপনা থাকে না। মনোযোগ ও আগ্রহ না থাকিলে কোন কাজ সুষ্ঠুভাবে সমাধা করা যায় না। অথচ সুখ লাভের জন্য কর্মে সাফল্য লাভ একান্ত আবশ্যক।

অপরের সঙ্গে ভাল আচরণ করা এবং সমাজ-সংসারের নিজ দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করা মানুষের কর্তব্য। যাহাদের শরীর রোগাক্রান্ত বা দুর্বল তাহাদের পক্ষে এ দায়িত্ব পালন সম্ভব হয় না। তাহাদের মেজাজ খিটখিটে থাকে এবং তাহারা সব কিছুতেই বিরক্তিবোধ করে। সর্বদা মন-মরা হইয়া বিষন্ন বদনে কাটান। তাহাদের মনে আনন্দ-উল্লাসের সঞ্চার ঘটে না। বিশ্বের অপার আনন্দ-উপকরণ তাহাদের প্রভাবিত করিতে পারে না।
অসুস্থ ব্যক্তি আলাপে আনন্দ পায় না, আহারেও তৃপ্তি পায় না।
স্বাস্থ্য রক্ষার জন্য প্রয়োজন নিয়মিত ব্যায়াম, পরিমিত পুষ্টিকর আহার, সচেতনতা ও পরিচ্ছনা।
সুন্দরভাবে জীবন-যাপন করার জন্য প্রচুর লেখা-পড়া করা ও ভাল কাজ করা একান্ত দরকার। স্বাস্থ্য ভাল থাকিলেই আমরা তাহা করিতে সক্ষম হইব।

প্রকৃত আনন্দ ও সুখ-সমৃদ্ধি অর্জনের জন্য নিজ নিজ স্বাস্থ্য-রক্ষায় যত্নবান হওয়া আমাদের উচিৎ।

2 comments:


Show Comments