বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিক্ষা সহায়ক ওয়েব সাইট

প্রতিবেদন : সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হওয়া শিক্ষাসফর

শিক্ষাসফর সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন তৈরি করো।


১০ জুন, ২০২১
আদেশ নম্বর ভি.নূ.স্কু.ক/২০২১/১০১

বরাবর
প্রধান শিক্ষক
ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজ, ঢাকা

বিষয়: সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হওয়া শিক্ষাসফর সম্পর্কে প্রতিবেদন।

জনাব,
গত ২৯-১০-২০২১ইং তারিখে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া শিক্ষাসফর সম্পর্কে প্রতিবেদন রচনায় আদিষ্ট হয়ে আমি নিম্নোক্ত প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করছি।

উক্ত শিক্ষাসফরের একজন অংশগ্রহণকারী হিসেবে এর যাবতীয় ঘটনার বর্ণনা তুলে ধরলাম।
১. শিক্ষাসফরে যাওয়ার প্রস্তুতি
২. উক্তস্থানে গমন
৩. সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান
৪. সার্বিক ব্যবস্থাপনা
৫. পরিসমাপ্তি

১. শিক্ষাসফরে যাওয়ার প্রস্তুতি : শিক্ষাদ সফরের সময় যত কাছাকাছি হচ্ছিল আমরা ততটাই উৎসাহিত হচ্ছিলাম। শিক্ষাসফরের নির্ধারিত স্থান ছিল ‘কুয়াকাটা’। অনেক দূরে স্থান হওয়ার ফলে আমাদের প্রস্তুতি ছিল অনেক। জামা-কাপড়, খেলাধূলা, যাবতীয় সরঞ্জাম, রান্না করার পাত্রসহ অনেক কিছু। তাই একটু বেশি প্রস্তুতি নিতে হয়েছিল।

২. উক্তস্থানে গমন : শিক্ষাসফর কুয়াকাটা। তাই আমরা ঠিক করলাম ঢাকার সদরঘাট থেকে প্রথমে লঞ্চে পটুয়াখালী। তারপর সেখান থেকে বাসে করে কুয়াকাটায় পৌঁছানো। ঠিক সন্ধ্যার আগে লঞ্চের যাত্রা শুরু হলো। আমরা রাতের চাঁদ আর তারার ঝলকানি দেখে আরো বেশি মুগ্ধ হয়েছিলাম। খুব উত্তেজনায় কেটেছিল রাতটি। পরের দিন খুব সকালে আমাদের নির্ধারিত স্থানে আমরা পৌঁছলাম।

৩. সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান : পর্যটন এলাকায় পৌঁছানোর পর স্যারের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রথমে নাস্তা সেরে বৌদ্ধমন্দির, কুয়াকাটার গভীর কুয়া, ঝাউবাগানসহ নানা দর্শনীয় স্থান ছোট ছোট দলে বিভক্ত হয়ে ঘুরে আসলাম। এরপর শুরু হল রিয়াদ স্যারের নির্দেশনায় নানারকম খেলা। খেলার মাধ্যমে আমাদের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড শেষ করেছিলাম।

৪. সার্বিক ব্যবস্থাপনা : শিক্ষাসফরের জন্য নির্ধারিত ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ তাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনের চেষ্টা করেছিল। কিছু বিচ্যুতি ছিল না এমন নয়। দেখা যাচ্ছেল দলছুট বেশ কিছু মেয়ে অনেক দূর চলে গিয়েছিল। প্রথমে তাদের খুঁজে না পেলেও পরে সবাই মিলে খুঁজে বের করলাম। এত সবার মাঝে ভয় ও হতাশা কাজ করছিল।

৫. পরিসমাপ্তি : খাবারসহ যাবতীয় বিষয় সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন হয়েছিল। যদিও খাবারের বাজেট ছিল অপ্রতুল। সকলের খাবার নেয়ার আগেই শেষ হয়েছিল। তবে অল্প সময়ের মধ্যেই আবার খাবারের ব্যবস্থা হয়ে যায়। বড় অনুষ্ঠানে ছোটখাটো কিছু বিচ্যুতি থাকেই। তবে পরবর্তী সময়ে শিক্ষাসফরের কথা চিন্তা করলে ভালোই লাগে। উপর্যুক্ত বিচ্যুতি যাতে এড়ানো যায় সেদিকে গুরুত্ব দিতে হবে। ভালোভাবে পরিচালনা করলে আশা করা যায় ভবিষ্যতে আরো ভালো শিক্ষাসফর আয়োজন করা সম্ভব হবে। এই শিক্ষাসফরের প্রাপ্তিও অনেক বেশি। সব মিলিয়ে আমরা একটি চমৎকার শিক্ষাসফর করেছিলাম।

প্রতিবেদকের নাম ও ঠিকানা : সায়মা বিনতে মাহবুব, ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজ, ঢাকা।
প্রতিবেদনের শিরোনাম : শিক্ষাসফর সম্পর্কে প্রতিবেদন।
প্রতিবেদন তৈরির সময় : সকাল ১১টা।
তারিখ : ১০/১১/২০২১।

No comments