মার্চের দিনগুলি

সাধারণ জ্ঞান : মুজিব শতবর্ষ

মুজিব শতবর্ষ

মুজিব বর্ষঃ ১৭ মার্চ, ২০২০ থেকে ১৬ ডিসেম্বর ২০২১ সাল পর্যন্ত।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানের ১০০ দিনের ক্ষণগননা হয় ১০ জানুয়ারি, ২০২০ সালে।

১০ জানুয়ারি, ১৯৭২ সাল বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস।

ইউনেস্কোর ৪০ তম সাধারন অধিবেশনে মুজিব বর্ষ পালনের সিন্ধান্ত পাস হয়।

ইউনেস্কোর বর্তমান সদস্য ১৯৩ টি রাষ্ট্র মুজিববর্ষ পালন করবে।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ২৬ মার্চ, ২০২১ সাল।

সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে দেশে প্রথমবারের মতো ৭ম ব্যাংক নোট বাজারে ছাড়া হয়। যা ২০০ টাকা মূল্যমানের নোট।

mujib100.gov.bd নামক ওয়েবসাইটে মুজিব বর্ষের সকল কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

মুজিব বর্ষের লোগোর ডিজাইনার — সব্যসাচী হাজরা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবরের সবচেয়ে বড় ভাস্কর্য স্থাপিত হয়েছে চট্টগ্রাম মহানগরীর হালিশহরের মোড়ে।

বেদিসহ এ ভাস্কর্যের উচ্চতা ২৬.৫ ফুট। যার নাম রাখা হয়েছে “বজ্রকন্ঠ”।

বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে তিন ধরনের মন্তব্য খাতা রাখা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু কে নিয়ে ‘মুজিব ভাই’ বইটি লেখেন এবিএম মুসা।

বঙ্গবন্ধুর খুনী মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত আসামী ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আব্দুল মাজেদের ফাঁসি কার্যকর করা হয় ১২ এপ্রিল, ২০২০

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২১ উৎসর্গ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু কে।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১লা মার্চ জাতীয় বীমা দিবস ঘোষণা করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু মান মন্দির নির্মিত হবে ফরিদপুরের ভাঙ্গায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু চেয়ার পদে ১ বছরের জন্য নিয়োগ পেয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর আতিউর রহমান।

বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের চিত্রনাট্য লিখেছেন অতুল তিওয়ারি এবং পরিচালনায় শ্যাম বেনেগাল।

মুজিববর্ষকে স্মরণ করে বিপিএল এর ৭ম আসরের নামকরণ করা হয় ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’।

মুজিব বর্ষে স্লোগান হল: ‘মুজিব বর্ষে প্রতিশ্রুতি, আর্থিক খাতের অগ্রগতি’।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানকে সম্মানসূচক ‘ডক্টরস অব লজ’ (মরণোত্তর) ডিগ্রী দেওয়া হবে।

জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত আনোয়ারুল করিম চৌধুরী বঙ্গবন্ধু কে 'Friends of the world’ বা ‘বিশ্ব’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।

1 Comments

Post a Comment
Previous Post Next Post