বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিক্ষা সহায়ক ওয়েব সাইট

প্রতিবেদন : ‘মহান বিজয় দিবস’ উদ্‌যাপন সম্পর্কিত

‘মহান বিজয় দিবস’ উদ্‌যাপন সম্পর্কিত একটি প্রতিবেদন রচনা করো।

বা, মনে করো, তুমি অনীক হোসেন। পাবনা জিলা স্কুলের দশম শ্রেণির একজন ছাত্র। তোমার বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান সম্পর্কে প্রধান শিক্ষক বরাবর একটি প্রতিবেদন লেখো।


১৮ই ডিসেম্বর, ২০২১
বরাবর
প্রধান শিক্ষক
পাবনা জিলা স্কুল
পাবনা

বিষয় : বিজয় দিবস উদ্‌যাপন উপলক্ষ্যে প্রতিবেদন
সূত্র: পা.জি.স্কু./২১(৭)/১৮

জনাব,
সম্প্রতি পাবনা জিলা স্কুল ৪৮তম বিজয় দিবস উদ্‌যাপন সম্পর্কে আদিষ্ট হয়ে নিম্নলিখিত প্রতিবেদন উপস্থাপন করছি।

পাবনা জিলা স্কুল বিজয় দিবস উদ্‌যাপিত

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে গত ১৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ পাবনা জিলা স্কুলে দিনব্যাপী কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল আলোচনা সভা, মিলাদ মাহফিল, মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, স্বরচিত কবিতা পাঠের আসর, সংগীতানুষ্ঠান, বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক খেলাধুলা, রচনা প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভার প্রধান অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট ভাষাবিদ অধ্যাপক আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক ও পৌরসভার চেয়ারম্যান। আলোচনায় অংশ নেন বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক ও মুক্তিযোদ্ধা শেখ হারুন-অর-রশীদ।

প্রধান অতিথি ভাষনে আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বিজয়ের গৌরব নিয়ে আমাদের দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করে যেতে হবে। ভৌগোলিক স্বাধীনতা এলেও আমাদের জাতীয় জীবনে অর্থনৈতিক মুক্তি এখনো আসেনি। অর্থনৈতিক মুক্তি ছাড়া দেশের মানুষের কল্যাণ নিশ্চিত করা সম্ভব নয়।

বিশেষ অতিথির ভাষনে জেলা প্রশাসক বলেন, স্বাধীনতা অর্জনের চেয়ে স্বাধীনতা রক্ষা করা কঠিন। স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে যদি আমরা রক্ষা করতে পারি তাহলেই বিজয় দিবসের আনন্দ অর্থবহ হবে। বিজয়ের গৌরবে অনুপ্রাণিত হয়ে আমাদের সবাইকে জাতি গঠনে কাজ করে যেতে হবে।

পৌরসভার চেয়ারম্যান বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধে বিজয় যে কোনো মুক্তি-পাগল মানুষের জন্যে অমূল্য সম্পদ। আমাদের জাতীয় চেতনায় বিজয় দিবস অফুরন্ত প্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে।

সভাপতির বক্তব্যে প্রধান শিক্ষক বলেন, মরণযজ্ঞের মধ্য দিয়ে মুক্তিকামী এদেশের মানুষ গড়ে তুলেছিল প্রতিরোধ আন্দোলন। পশ্চিম পাকিস্তানের বর্বর শাসকদের বর্বরতা মধ্যযুগীয় বর্বরতাকেও হার মানিয়েছিল। কিন্তু শত অত্যাচার-নিপীড়নও বাঙালি জাতিকে তার কাঙ্ক্ষিত স্বাধীনতা থেকে বঞ্চিত করতে পারেনি। আমাদের এ স্বাধীনতার পেছনে রয়েছে ত্রিশ লক্ষ শহিদের আত্মদান।

সবশেষে খেলাধুলা ও রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন প্রধান অতিথি আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ।

নিবেদক
আরফাত হোসেন।
আহবায়ক বিজয় দিবস উদ্‌যাপন কমিটি।
পাবনা জিলা স্কুল

No comments