বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিক্ষা সহায়ক ওয়েব সাইট

প্রতিবেদন : বছরের প্রথম দিন শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই

মনে করো, তুমি রংপুর অঞ্চলের ‘দৈনিক প্রথম আলো’ পত্রিকার প্রতিনিধি। বছরের প্রথম দিনে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় বই বিতরণের ওপর একটি সংবাদ প্রতিবেদন রচনা করো।

অথবা, মনে করো, তুমি হোমনা অঞ্চলের ‘দৈনিক প্রথম আলো’ পত্রিকার প্রতিনিধি। বছরের প্রথম দিনে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় বই বিতরণের ওপর একটি সংবাদ প্রতিবেদন রচনা করো।


বছরের প্রথম দিন শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই

নিজস্ব প্রতিবেদক : রংপুর : ১লা জানুয়ারি, ২০১৮ : নতুন বছরের প্রথম দিন দেশব্যাপী উদ্‌যাপিত হলো ‘পাঠ্যপুস্তক বিতরণ উৎসব’। এ উৎসবের আওতায় দেশের প্রতিটি মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চার কোটি ৪৪ লাখ ১৬ হাজার ৭২৮ জন শিক্ষার্থীর হাতে তুলে দেওয়া হলো ৩৩ কোটি ৩৭ লাখ ৬২ হাজার ৭৬০টি নতুন বই। জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) সূত্রে জানা যায়, নানা প্রতিবন্ধকতা ও প্রতিকূলতাকে পাশ কাটিয়ে এনসিটিবি নতুন বছরে বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থীর হাতে বিনা মূল্যে পাঠ্যপুস্তক পৌঁছে দেয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর এবং প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সমন্বিতভাবে সারাদেশে পাঠ্যপুস্তক সুষ্ঠুভাবে বই বিতরণের কাজ করেছে। বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় মন্ত্রী, জনপ্রতিনিধি, উচ্চপদস্ত কর্মকর্তারা এই পাঠ্যপুস্তক বিতরণী কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। ঢাকা মহানগরীতে এবার প্রধান প্রধান স্কুলকে কেন্দ্র করে পাঠ্যপুস্তকের বিতরণ কার্যক্রম চালানো হয়। এসব স্কুলের প্রধানরা তাঁদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান এবং ওই এলাকার অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের বই বিতরণ কার্যক্রম মনিটরিং ও সমন্বয় করেন।

শিক্ষামন্ত্রীর সার্বক্ষণিক তৎপরতা ও আন্তরিকতায় পাঠ্যপুস্তকের যাবতীয় কর্মকাণ্ড সুচারুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এনসিটিভির সম্পাদনা বিভাগের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জানান, শিক্ষামন্ত্রী জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের কার্যালয়ে একাধিকবার অনির্ধারিত সফরে এসে পাঠ্যপুস্তক বিষয়ক সব কর্মকাণ্ডের সমস্যা ও অগ্রগতির ব্যাপারে খোঁজ-খবর নিয়েছেন।

No comments