অ্যাসাইনমেন্ট-২০২১ বাংলা রচনা সমগ্র ভাবসম্প্রসারণ তালিকা অনুচ্ছেদ চিঠি / দরখাস্ত প্রতিবেদন প্রণয়ন সারাংশ সারমর্ম ব্যাকরণ Composition / Essay Paragraph Letter, Application & Email Dialogue List Completing Story Report Writing Graphs & Charts English Note / Grammar পুঞ্জ সংগ্রহ সাধারণ জ্ঞান কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স বই পোকা হ য ব র ল তথ্যকোষ পাঠ্যপুস্তক CV & Job Application বিজয় বাংলা টাইপিং My Study Note আমার কলম সাফল্যের পথে এই সাইট থেকে আয় করুন


বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিক্ষা সহায়ক ওয়েব সাইট

প্রতিবেদন : বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠান সম্পর্কিত

মনে করো, তোমার নাম তূর্য। তুমি কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী। তোমার বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সম্পর্কিত একটি প্রতিবেদন রচনা করো।

অথবা, তোমার বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত ক্রীড়া প্রতিযোগিতার বর্ণনা দিয়ে প্রধান শিক্ষক বরাবর একখানা প্রতিবেদন রচনা করো।

অথবা, মনে করো তুমি মুনির/মুনিরা; উদয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তোমার বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার ওপর প্রধান শিক্ষক বরাবরে একখানা প্রতিবেদন প্রণয়ন করো।

অথবা, মনে করো, তুমি বগুড়া জিলা স্কুলের একজন ছাত্র। তোমার স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর ওপর ভিত্তি করে একটি প্রতিবেদন রচনা করো।

অথবা, তোমার বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার বিবরণ দিয়ে একটি প্রতিবেদন তৈরি করো।

অথবা, মনে করো, তুমি মাসুম। তুমি ধামতী হাই স্কুলের একজন ছাত্র। তোমার স্কুলে অনুষ্ঠিত ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উপর প্রধান শিক্ষক বরাবর একটি প্রতিবেদন লেখো।


২রা এপ্রিল, ২০২১

বরাবর
প্রধান শিক্ষক
কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়

বিষয় : বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠান সম্পর্কিত প্রতিবেদন।
সূত্র : কা.উ.বি. বাক্রী/২০২১/২৭ (০৭)

জনাব,
আমি আপনার আদেশানুসারে কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠান সম্পর্কে একটি সংক্ষিপ্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন করছি।

কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

১. ১লা এপ্রিল, ২০২১ কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। অন্যান্য বছরের মতো এবারও এই নিয়মিত ক্রীড়া প্রতিযোগিতা আয়োজনের দায়িত্ব ছিল বার্ষিক ক্রীড়া উদ্‌যাপন কমিটির ওপর। কমিটির সদস্যদের একান্ত প্রচেষ্টায় সুন্দরভাবে ক্রীড়ানুষ্ঠানটি পরিচালিত হয়েছে।

২. এবারের প্রতিযোগিতার বিষয় ছিল খুবই বৈচিত্র্যপূর্ণ। পঁচিশটিরও বেশি বিষয়ে শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। বিষয়গুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিভিন্ন রকমের দৌড়, লাফ, লৌহগোলক নিক্ষেপ, বর্শা নিক্ষেপ, চাকতি নিক্ষেপ, দ্রুত হাঁটা, সাইকেল দৌড় ইত্যাদি। ছাত্র ও ছাত্রীদের জন্য পৃথক পৃথক বিষয় নির্ধারিত ছিল। ‘যেমন খুশি তেমন সাজো’ এবং আমন্ত্রিত মহিলাদের জন্য ‘বালিশ খেলা’ অনুষ্ঠানটি হয়েছিল বিশেষ উপভোগ্য। পুরুষ অতিথিদের জন্য ছিল হাঁড়িভাঙা। বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও অন্য কর্মচারীদের জন্যও ছিল প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা।

৩. ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারীদের পুরস্কৃত করা হয়। প্রতিযোগিতায় ছেলেদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ প্রতিযোগীর গৌরব লাভ করেছিল দশম শ্রেণির ছাত্র মাহফুজ হাসান এবং মেয়েদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হয়েছিল নবম শ্রেণির সাবরিনা আক্তার দোলা।

৪. বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন হয়েছিল সকাল নয়টায়। উদ্বোধন করেছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় যুব, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী জনাব আহাদ আলী সরকার। সারাদিন প্রতিযোগিতা চলার পর বিকেল পাঁচটায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন মাননীয় যুব, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে অভিভাবক ও স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। বিপুলসংখ্যক আমন্ত্রিত অতিথি দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।

৫. বিদ্যালয়ের অনেক ছাত্রছাত্রী এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল। বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষকের নির্দেশনায় শিক্ষার্থীরা ক্রীড়ানুশীলনের প্রতি দারুণভাবে আগ্রহী হয়ে উঠেছিল। এ প্রতিযোগিতার পূর্বে বাছাই পর্বে অনেককে বাদ দিতে হয়েছে। তবে ক্রীড়াচর্চায় উৎকর্ষের কিছু অভাব পরিলক্ষিত হয়েছে। বিদ্যালয়ে নিয়মিত খেলাধুলা চর্চার সুযোগ থাকলে শিক্ষার্থীরা আরও বেশি উৎকর্ষ দেখাতে সক্ষম হতো। লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলারও যে প্রয়োজনীয়তা আছে সে সম্পর্কে কর্তৃপক্ষের সচেতন হওয়া আবশ্যক।

৬. এবারের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অত্যন্ত উৎসাহ-উদ্দীপনার সঙ্গে উদ্‌যাপিত হয়েছে। বিদ্যালয়ের বিশাল মাঠ সাজানো হয়েছিল সুন্দরভাবে। প্রতিযোগীদের কুচকাওয়াজ, তোপধ্বনি, পায়রা ওড়ানো ইত্যাদি আনুষ্ঠানিকতা সুন্দরভাবে সম্পাদিত হয়েছে। খেলাধুলার পাশাপাশি বিভিন্ন বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান দর্শকদের আনন্দ দিয়েছে। ছাত্রছাত্রীরা যে শৃঙ্খলার পরিচয় দিয়েছে তা আজকের দিনে বিরল। বিদ্যালয়ের সব শিক্ষক উদার সহযোগিতা করে প্রতিযোগিতাকে সফল করে তুলেছেন। প্রধান অতিথির ভাষণ ছাত্রছাত্রীদের মনে বহুদিন প্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে।

৭. বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠানটি বিদ্যালয়ের গৌরবজনক ইতিহাসে নতুন মাত্রা সংযোজন করতে সক্ষম হয়েছে।

প্রতিবেদকের নাম ও ঠিকানা : তূর্য, দশম শ্রেণি, মানবিক বিভাগ, রোল-৭, কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়।
প্রতিবেদনের শিরোনাম : কাপাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত
প্রতিবেদন তৈরির সময় : সকাল ১০টা
তারিখ : ২রা এপ্রিল ২০২১

No comments