বইয়ে খোঁজার সময় নাই
সব কিছু এখানেই পাই

অনুচ্ছেদ : মূল্যবোধ

মূল্যবোধ


ভালো-মন্দ, ঠিক-বেঠিক, কাঙ্ক্ষিত-অনাকাঙ্ক্ষিত বিষয় সম্পর্কে সমাজের সদস্যের যে ধারণা তার নামই মূল্যবোধ। এটি মানবীয় গুণাবলির মধ্যে অন্যতম একটি গুণ। এই গুণটি ধারণ না করতে পারলে মানুষ নৈতিক চরিত্রের অধিকারী হতে পারে না। সহজভাবে বলা যায়, ভালো বা মন্দ মূল্যায়ন বা বিচার করার যে বোধ বা শক্তি মানুষের মাঝে বিরাজ করে সেটাই মূল্যবোধ। অর্থাৎ ভালোকে ভালো জানা এবং মন্দকে মন্দ জেনে তা থেকে দূরে থাকার চেষ্টা মূল্যবোধ হিসেবে পরিচিত। মূল্যবোধ বলতে নৈতিক ও সামাজিক মূল্যবোধকে বোঝায়। নৈতিক মূল্যবোধের বিষয়টি শুভবোধ, সৎ চিন্তা, সততা ও নির্লোভ জীবন পদ্ধতির সাথে সম্পৃক্ত। যে ব্যক্তি জীবনে সত্য কথা বলাকে অভ্যাসে পরিণত করতে পারেনি তার মধ্যে নৈতিক মূল্যবোধ আশা করা অসংগত। তাই মূল্যবোধ মানুষের শ্রেষ্ঠ অলংকার। মূল্যবোধসম্পন্ন মানুষ স্বভাবতই উত্তম চরিত্রের হয়ে থাকে। তাই সৎ চরিত্রবান মানুষের প্রভাব পড়ে সমাজে। যে সমাজ যত বেশি মূল্যবোধসম্পন্ন সে সমাজ তত বেশি সুখী ও সমৃদ্ধ। সমাজে নৈতিক গুণসম্পন্ন মানুষের অভাব হলে সমাজে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা অসম্ভব। সমাজজীবনে চরম দারিদ্র্য, শিক্ষিত বেকারের কর্মহীনতা, ভোগবাদী মানুষের বিলাসী প্রতিযোগিতা, আপাত স্বার্থে লোভে পতিত হওয়া প্রভৃতির ফলে মানুষের মূল্যবোধের অবক্ষয় ঘটে। মূল্যবোধ ভেঙে পড়লে সমাজে বিশৃঙ্খলা ছড়িয়ে পড়ে। দুর্নীতিতে সর্বোচ্চ শিখরে আসীন হয় দেশ। মূল্যবোধের অবক্ষয় রোধ করার জন্য ব্যক্তিগতভাবে সুনীতি ও শুভবুদ্ধি চর্চা শুরু করতে হবে। পাশাপাশি রাষ্ট্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা ও নীতিবোধসম্পন্ন দক্ষ জনপ্রশাসন গড়ে তুলতে হবে। তবেই আমরা উন্নীত হব সম্মানজনক সামাজিক জীবনে।

No comments