বইয়ে খোঁজার সময় নাই
সব কিছু এখানেই পাই

ভাবসম্প্রসারণ : মরিতে চাহি না আমি সুন্দর ভুবনে / মানুষের মাঝে আমি বাঁচিবারে চাই।

মরিতে চাহি না আমি সুন্দর ভুবনে
মানুষের মাঝে আমি বাঁচিবারে চাই।

সুন্দর প্রকৃতির প্রতি মানুষের ভালবাসা যেমন চিরন্তন তেমনি মানুষের প্রতি মানুষের আকর্ষণও অপরিসীম। তাই মরণশীল মানুষ প্রকৃতি ও মানুষের সান্নিধ্যময় মানবজীবন থেকে বিদায় নিতে চায় না। জগতে অনন্তকাল ধরে জীবন উপভোগের আকাঙ্ক্ষা মানুষের চিরন্তন।

প্রকৃতির অপূর্ব রূপবৈচিত্র্যের সঙ্গে মানুষের জীবনের রয়েছে এক অবিচ্ছেদ্য মেলবন্ধন। প্রতিটি মানুষ জন্ম নেয় প্রকৃতির কোলে। আর প্রকৃতির অপার সম্পদ ব্যবহার করেই সে জীবন ধারণ করে। মাটির পৃথিবীর আলো- বাতাস-জলে সে পায় অমৃতের স্বাদ। অন্যদিকে পৃথিবীতে মানুষ নিঃসঙ্গ বা একাকী বাঁচতে পারে না। চারপাশের মানুষের স্নেহ-মমতা ও প্রীতির ডোরে সার্থক ও ধন্য হয় তার জীবন। তাই প্রকৃতি ও মানুষের প্রতি মানুষের ভালবাসা চিরন্তর। পার্থিব জীবনে প্রকৃতি ও মানুষের মধ্যে থেকে মানুষ এত আনন্দিত ও এত মুগ্ধ যে স্বর্গের আকর্ষণ তার কাছে তুচ্ছ। তাই সে পৃথিবীকে ছাড়তে চায় না, মৃত্যুকে বরণ করতে চায় না। কিন্তু মানুষ জানে, তাকে একসময় না একসময় মৃত্যুকে বরণ করতে হবে। ছেড়ে যেতে হবে এই সুন্দর পৃথিবীকে, ছেড়ে যেতে হবে প্রিয় মানুষগুলোকে। এই হারানোর বেদনা এত গভীর যে তার ফলে সুন্দর পৃথিবী ও প্রিয় মানুষগুলোর জন্যে তার মমতা ও ভালবাসা হয়ে ওঠে আরও প্রবল।

বস্তুত, সুন্দর পৃথিবী ও প্রীতিপূর্ণ মানুষের সাহচর্যের মধ্যে মানুষ পায় অমৃত সুখ ও অনাবিল আনন্দ। তাই প্রকৃতি ও মানুষের প্রতি তার অসীম মমতা। এই মমতা বন্ধন ছিন্ন করা মানুষের জন্যে সত্যিই কঠিন।


এই ভাবসম্প্রসারণটি অন্য বই থেকেও সংগ্রহ করে দেয়া হলো


এ ধুলার ধরণীর প্রতি মানুষের ভালোবাসা অকৃত্রিম। তাই মৃত্যু অবধারিত জেনেও মানুষ এ পৃথিবী থেকে বিদায় নিতে চায় না। বরং এর আনন্দের মধ্যে জীবনের সার্থকতার সন্ধান করে মানুষ।

মায়াবিনী কুহকিনী পৃথিবী মানুষকে তার মায়াজালে এমনভাবে আবদ্ধ রাখে যে, এই পৃথিবীর রূপ-রস-বর্ণ-গন্ধ-স্পর্শ ছেড়ে সে যেতে চায় না- চিরজীবন তার কোলে মাথা রেখে বেঁচে থাকার মিনতি জানায়। এ অমরত্বের প্রার্থনা মানুষের চিরন্তন। মধুময় পৃথিবীর ধুলিকণা গায়ে মেখে মানুষ অমৃতের স্বাদ লাভ করে বলেই, তার কাছে পৃথিবী এত সুন্দর । পৃথিবী মানবের এ অপূর্ব লীলাক্ষেত্র। মানুষ পৃথিবীতে এসে চারদিকে জীবনের যে আনন্দময় প্রকাশ দেখে এবং প্রকৃতির মধ্যে যে অনাবিল সৌন্দর্য উপভোগ করে তা ছেড়ে মানুষ স্বর্গেও যেতে চায় না। স্নেহ-প্রেম ভালোবাসাপূর্ণ এই জগৎসংসারের মায়াময় পরিবেশ ছেড়ে চিরদিনের জন্যে চলে যেতে হবে বলেই এর প্রতি মানুষের ভালবাসাও প্রবলতর। বিধাতার আনন্দের ফল এই পৃথিবী। এর সৌন্দর্য ও মায়া জীবনকে এত বেশি আকর্ষণ করে এবং হৃদয়কে এত বেশি অভিভূত করে যে, সবসময়ই মানুষের কণ্ঠে শোনা যায় এর প্রতি মমত্ববোধের অকৃত্রিম উচ্চারণ।

মানুষ মরণশীল বলে একসময় এই পৃথিবী থেকে চিরবিদায় গ্রহণ করতে হয়। জীবনের এই পরিণতিকে অগ্রাহ্য করা কারও পক্ষে সম্বব নয়। অবশ্যম্ভাবী এই পরিণাম জেনেও মানষ এই পৃথিবীর রূপ-রস-গন্ধে আকৃষ্ট হয়ে, তার রূপে মুগ্ধ হয়ে মৃত্যুর কথা ভুলে গিয়ে আমৃত্যু বেঁচে থাকতে চায়।

2 comments:


Show Comments