My All Garbage

Shuchi Potro
সাধারণ জ্ঞান বাংলা ব্যাকরণ বাংলা রচনা সমগ্র ভাবসম্প্রসারণ তালিকা অনুচ্ছেদ চিঠি-পত্র ও দরখাস্ত প্রতিবেদন প্রণয়ন অভিজ্ঞতা বর্ণনা সারাংশ সারমর্ম খুদে গল্প ভাষণ লিখন দিনলিপি সংলাপ অ্যাসাইনমেন্ট-২০২১ English Grammar Composition / Essay Paragraph Letter, Application & Email Dialogue List Completing Story Report Writing Graphs & Charts পুঞ্জ সংগ্রহ বই পোকা হ য ব র ল তথ্যকোষ পাঠ্যপুস্তক CV & Job Application My Study Note আমার কলম সাফল্যের পথে
About Contact Service Privacy Terms Disclaimer Earn Money


বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিক্ষা সহায়ক ওয়েবসাইট

সাধারণ জ্ঞান : মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা

মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা

বিভিন্ন পরীক্ষায় আসা মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নাবলি দিয়ে সাজানো হয়েছে এ বিভাগ। চাকরি প্রস্তুতির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি আয়োজন। 

স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলিত হয়েছিল ১৯৭১ সালের — ২ মার্চ (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র সভায়)। 

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ রাত থেকে বর্বর পাকিস্তানি সামরিক বাহিনী বাংলাদেশে যে সশস্ত্র আক্রমণ চালায় তার নাম দিয়েছিল — অপারেশন সার্চলাইট। 

Who is the first martyr in our liberation war? — Sangku Samajhder. 

১৯৭১ সালে ঢাকা শহরে ‘অপারেশন সার্চলাইট’ পরিচালনার মূল দায়িত্বে ছিলেন — জেনারেল রাও ফরমান আলী। 

১৯৭১ সালে ২৫ মার্চ ছিল — বৃহস্পতিবার। 

আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র কবে জারি করা হয়? — ১০ এপ্রিল ১৯৭১। 

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইশতেহার ঘোষণা করা হয় ১৯৭১ এর — ৩ মার্চ। 

কোথায় বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইশতেহার ঘোষণা করা হয়? — পল্টন ময়দান। 

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের মূল মন্ত্র ছিল — জাতীয়তাবাদ, গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র, ধর্মনিরপেক্ষতা। 

স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র প্রথম স্থাপন করা হয় — কালুরঘাট, চট্টগ্রাম। 

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা বার্তাটি কোন সংগঠনের মাধ্যমে বাংলাদেশের সকল স্থানে প্রচারিত হয়েছিল? — ইপিআর। 

পৃথিবীর কোন দেশ দুটির স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র রয়েছে? — বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র। 

সেক্টর/ফোর্স 
বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে মোট কয়টি ফোর্স ছিল? — ৩টি; যথা— জেড ফোর্স, কে ফোর্স ও এস ফোর্স। 

স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় মুক্তিবাহিনীর চিফ অব স্টাফ কে ছিলেন? — লে. কর্নেল (অব.) আব্দুর রব। 

মুক্তিযুদ্ধের উপ-সর্বাধিনায়ক ছিলেন — এ. কে. খন্দকার। 

মুক্তিযুদ্ধের সময় নৌ-কমান্ড গঠিত হয় কোন সেক্টর নিয়ে? — ১০নং সেক্টর। 

মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশকে কয়টি সেক্টরে ভাগ করা হয়েছিল? — ১১টি। 

মুক্তিযুদ্ধের সময় ঢাকা শহর কোন সেক্টরের অধীনে ছিল? — দুই নম্বর সেক্টর। 

মুক্তিযুদ্ধের কোন সেক্টরটি ছিল ব্যতিক্রমধর্মী? — ১০নং। 

মুক্তিযুদ্ধের মোট সাব সেক্টর কতটি ছিল? — ৬৪টি। 

মুক্তিযুদ্ধের সময় ঢাকার গেরিলা বাহিনীর নাম কী ছিল? — ক্র্যাক প্লাটুন।

মুক্তিযুদ্ধে ‘ক্র্যাক প্লাটুন' কোন শহরে সক্রিয় ছিল? — ঢাকা। 

শহীদ মুক্তিযোদ্ধা শফি ইমাম রুমী মুক্তিবাহিনীর কোন গেরিলা দলের সদস্য ছিলেন? — ক্র্যাক প্লাটুন। 

অপারেশন জ্যাকপট কী? — বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে নৌ কমান্ডোদের অভিযান।

তারামন বিবি যুদ্ধ করেন কোন সেক্টরে? — ১১। 

মুক্তিযুদ্ধে প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধ গড়ে তোলেন — ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্ট। 

মুক্তিবাহিনীর ‘ওয়ার স্ট্র্যাটেজি’ কী নামে পরিচিত? — তেলিয়াপাড়া স্ট্র্যাটেজি। 

মুক্তিযুদ্ধের সময় ১০ নম্বর সেক্টরের অধীনে দেশের কোন অঞ্চল ছিল? — সমগ্র নৌপথ।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় অপারেশন জ্যাকপটে নৌ-কমান্ডারদের আক্রমণের সাংকেতিক নির্দেশ দেওয়া হতো কীভাবে? — স্বাধীন বাংলা বেতারের গানে। 

বহির্বিশ্ব 
১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় জাতিসংঘে কোন দেশ বাংলাদেশের পক্ষে ‘ভেটো’ প্রদান করেছিল? — সোভিয়েত ইউনিয়ন। 

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট ছিলেন — Nikita khrushchev. 

মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা 
মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের স্বাধীনতা লাভের বিরোধিতা করেছিল জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের কোন দুটি স্থায়ী রাষ্ট্র? — চীন ও যুক্তরাষ্ট্র। 

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে পাকিস্তানি বাহিনীর বর্বরতার খবর প্রথম বহিঃবিশ্বে প্রচার করেন কোন সাংবাদিক? — সাইমন ড্রিং। 

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে জাতিসংঘের মহাসচিব কে ছিলেন? — উ থান্ট। 

আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কে ছিলেন? — আদ্রেই গ্রোমিকো। 

আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ে জাতিসংঘে নিযুক্ত ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি কে ছিলেন? — সমর সেন।

১৯৭১ সালে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামে সাহায্য করেছিলেন — অজয় মুখোপাধ্যায়। 

মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী দেশ কোনটি? — যুক্তরাষ্ট্র। 

কোন বিখ্যাত গায়ক ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের জন্য গান গেয়েছিলেন? — জর্জ হ্যারিসন। 

'Concert for Bangladesh' কে আয়োজন করেন? — পণ্ডিত রবি শংকর ও জর্জ হ্যারিসন। 

১৯৭১ সালে 'বাংলাদেশের জন্য কনসার্ট’ খ্যাত জর্জ হ্যারিসন কোন বাদক দলের সদস্য? — বিটলস। 

রবি শংকর একজন বিখ্যাত — সেতারবাদক। 

১৯৭১ সালে জর্জ হ্যারিসন কার আহ্বানে বাংলাদেশ কনসার্টে যোগদান করেন? — Ravi Shankar। 

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময়ে কোন তারিখে ভারত পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক যুদ্ধ ঘোষণা করে? — ৩ ডিসেম্বর ১৯৭১। 

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে নিহত ফাদার মারিওভেরেনজি ছিলেন — ইতালির নাগরিক। 

স্বীকৃতি 
বাংলাদেশকে স্বীকৃতিদানকারী প্রথম অনারব মুসলিম দেশ কোনটি? — সেনেগাল। 

বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদানকারী প্রথম ইউরোপীয় দেশ কোনটি? — পূর্ব জার্মানি। 

কোন আরব দেশ সর্বপ্রথম বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদান করে? — মিসর। 

বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতিদানকারী দ্বিতীয় দেশের নাম — ভারত। 

বাংলাদেশকে স্বীকৃতিদানকারী প্রথম আফ্রিকান দেশ কোনটি? — সেনেগাল। 

মধ্যপ্রাচ্যের কোন দেশ সর্বপ্রথম বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয়? — ইরাক। 

খেতাব
একমাত্র খেতাবপ্রাপ্ত উপজাতি মুক্তিযোদ্ধার নাম কী? — ইউ কে চিং। 

স্বাধীনতা যুদ্ধে অবদানের জন্য ‘বীরপ্রতীক’ উপাধি লাভ করে কতজন? — ৪২৬ জন। 

মহান মুক্তিযুদ্ধে খেতাবপ্রাপ্ত একমাত্র বিদেশী ব্যক্তি ওডারল্যান্ড কোন দেশের নাগরিক? — নেদারল্যান্ডস। 

বাংলাদেশে মর্যাদা অনুসারে ৩য় বীরত্বসূচক খেতাব — বীরবিক্রম। 

স্বাধীনতা যুদ্ধে অবদান রাখার জন্য কতজন মহিলাকে বীরপ্রতীক উপাধিতে ভূষিত করা হয়? — ২ জন। 

কোন নারী মুক্তিযোদ্ধা সর্বপ্রথম বীর প্রতীক খেতাব পান? — ক্যাপ্টেন সিতারা বেগম। 

মুক্তিযুদ্ধে সর্বশেষ শহীদ হন কোন বীরশ্রেষ্ঠ? — সিপাহি মোস্তফা কামাল। 

অন্যান্য 
মুক্তিযুদ্ধকালীন কোন তারিখে বুদ্ধিজীবীদের ওপর ব্যাপক হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়? — ১৪ ডিসেম্বর ১৯৭১। 

মুক্তিযুদ্ধের বিজয়ের দিন আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করেন কে? — এ কে খন্দকার। 

১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি বাহিনী ঢাকার কোথায় আত্মসমর্পণ করে? — তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে। 

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ১৬ ডিসেম্বর কোন পাকিস্তানি জেনারেল আত্মসমর্পণ করেন? — এ এ কে নিয়াজি। 

১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ এর আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে মিত্রবাহিনীর প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন —  জেনারেল জগজিৎ সিং আরোরা। 

১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ এর আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পক্ষে প্রতিনিধি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন — একে খন্দকার। 

১৯৭১ সালে স্বাধীনতা অর্জনের মূলে যে প্রেরণা ছিল তা কোনটি? — বাঙালি জাতীয়তাবাদ। 

পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর হাতে শহীদ দার্শনিকের নাম —  ড. জি সি দেব (গোবিন্দ চন্দ্ৰ দেব)।


আরো দেখুন :

No comments