My All Garbage

Shuchi Potro
সাধারণ জ্ঞান বাংলা ব্যাকরণ বাংলা রচনা সমগ্র ভাবসম্প্রসারণ তালিকা অনুচ্ছেদ চিঠি-পত্র ও দরখাস্ত প্রতিবেদন প্রণয়ন অভিজ্ঞতা বর্ণনা সারাংশ সারমর্ম খুদে গল্প ভাষণ লিখন দিনলিপি সংলাপ অ্যাসাইনমেন্ট-২০২১ English Grammar Composition / Essay Paragraph Letter, Application & Email Dialogue List Completing Story Report Writing Graphs & Charts পুঞ্জ সংগ্রহ বই পোকা হ য ব র ল তথ্যকোষ পাঠ্যপুস্তক CV & Job Application My Study Note আমার কলম সাফল্যের পথে
About Contact Service Privacy Terms Disclaimer Earn Money


বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিক্ষা সহায়ক ওয়েবসাইট

পাড়ার মাস্তানদের উপদ্রবের বিবরণ জানিয়ে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য সংবাদপত্রে পত্র

পাড়ার মাস্তানদের উপদ্রবের বিবরণ জানিয়ে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য সংবাদপত্রে একটি পত্র লেখ।


তারিখ : ১০ মার্চ, ২০২২

মাননীয় সম্পাদক,
দৈনিক ইত্তেফাক,
১, রামকৃষ্ণ মিশন রোড, ঢাকা।

মহোদয়,
নিম্নলিখিত পত্রখানা আপনার বহুল প্রচারিত দৈনিক ইত্তেফাক-এর চিঠিপত্র স্তয়ে প্রকাশ করে আমাদেরকে কৃতজ্ঞতার সহিত পাশে আবদ্ধ করবেন।

বিনীত নিদেক,
আপনার বিশ্বস্ত
মোঃ জাকির হোসেন

মাস্তানদের উপদ্রব

ঢাকা মহানগরীর সূত্রাপুর একটি ঘনবসতিপূর্ণ আবাসিক এলাকা। দীর্ঘদিন যাবৎ অত্র এলাকার জনগণ খুবই নির্বিঘ্নে শান্তিপূর্ণ জীবন যাপন করে আসছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি এলাকাটি মাস্তানদের আড্ডাখানায় পরিণত হওয়ায় জনগণের মনে কোনো শাস্তি নেই। তারা সবাই এখন খুবই উদ্বেগপূর্ণ জীবন যাপন করছেন। কারণ মাস্তানদের জ্বালাতনে স্কুল-কলেজের মেয়েরা নিরাপদে পথ চলতে পারে না। রাস্তার বিভিন্ন মোড়ে দোকানে ও রেঁস্তোরায় আড্ডারত মাস্তানরা মেয়েদেরকে দেখলেই নানাবিধ অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে, শীশ দেয়, খারাপ উক্তি করে, এমনকি অনেক সময় মেয়েদের পিছু নিয়ে থাকে। শুধু তাই নয়, বয়ষ্কা মহিলাদেরকেও তারা বিভিন্নভাবে লাঞ্চিত করে। স্থানীয় অধিবাসীরা এদের মা-বাবার কাছে বিচার দিয়েও কোন সুফল পান না। ফলে মেয়েরা বাসায় ফিরে না আসা পর্যন্ত অভিভাবকগণকে খুবই উদ্বেগের মধ্যে থাকতে হয়। মাস্তানদের উপদ্রবে শুধু মেয়েরাই নয়, অনেক পরিচিত লোকজন ও স্থানীয় ছোট-খাটো দোকনদাররাও অতিষ্ট। সন্ধ্যার পরে কিংবা খুব ভোরে অপরিচিত লোকের পক্ষে এলাকায় প্রবেশ কোনোক্রমেই সম্ভব নয়। জীবনের ভয় দেখিয়ে তাদের যথাসর্বস্ব লুণ্ঠন করে নেয় এবং অনেক সময় পিস্তলের গুলিতে কিংবা ছোরার আঘাতে তাদেরকে আহতও করা হয়। দোকান-পাটের নানা দ্রব্য এরা বিনামূল্যে বলপূর্বক নিয়ে যায়। টাকা-পয়সা দাবি করে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। আবার অনেক সময় বাসার মধ্যে চড়াও হয়ে চাঁদা আদায়ের অজুহাতে অধিবাসীদেরকে হয়রানীও করে থাকে।

অতএব, অনতিবিলম্বে এ সব বিপথগামী বখাটেদের উপদ্রব বন্ধ করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণপূর্বক এলাকাবাসীকে নিরাপদে বসবাস ও চলাফেরার নিশ্চয়তাদানে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

বিনীত নিবেদক,
জাকির হোসেন

No comments