বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শিক্ষা সহায়ক ওয়েব সাইট

প্রতিবেদন : বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন উপলক্ষ্যে

তোমার বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানের ওপর একটি প্রতিবেদন তৈরি করো।

অথবা, মনে করো, তুমি নাহিদ। তুমি বরিশাল জিলা স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র। তোমার বিদ্যালয়ে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানের বিবরণ দিয়ে প্রধান শিক্ষক বরাবর একটি প্রতিবেদন প্রণয়ন করো।

অথবা, তোমার বিদ্যালয়ে ‘একুশে ফেব্রুয়ারি’ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালার বর্ণনা দিয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা করো।

অথবা, নন্দীগ্রাম আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে একুশে ফেব্রুয়ারি উদ্‌যাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালা সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন রচনা করো।

অথবা, মনে করো, তোমার নাম কচি। তুমি কনকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। তোমার বিদ্যালয়ে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ উদ্‌যাপন করেছ। উক্ত অনুষ্ঠানের বিবরণ দিয়ে প্রধান শিক্ষক বরাবরে একখানা প্রতিবেদন রচনা করো।


২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১

বরাবর
প্রধান শিক্ষক
মহারানি স্বর্ণময়ী স্কুল এন্ড কলেজ
উলিপুর, কুড়িগ্রাম।

বিষয় : বিদ্যালয়ে আয়োজিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের অনুষ্ঠান সম্পর্কে প্রতিবেদন।
সূত্র : ম.ক. ২০২১/৩৪ (ক)

জনাব,
সম্প্রতি সমাপ্ত মহারানি স্বর্ণময়ী স্কুল এন্ড কলেজে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের অনুষ্ঠান সম্পর্কে প্রতিবেদন পেশে আদিষ্ট হয়ে নিম্ন লিখিত প্রতিবেদন উপস্থাপন করছি।

মহারানি স্বর্ণময়ী স্কুল এন্ড কলেজে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদ্‌যাপিত

১. আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদ্‌যাপন উপলক্ষে মহারানি স্বর্ণময়ী স্কুল এন্ড কলেজে ২১শে ফেব্রুয়ারি ২০২১ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন বাংলা বিভাগের শিক্ষক জনাব রণজির কুমার সেন। তাঁরই নির্দেশনায় সব ধরনের কর্মসূচি প্রণয়ন করা হয়।
২. ভোর হতে না হতেই বিদ্যালয়ের শহিদমিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলির মাধ্যমে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান আরম্ভ হয়। ভোর থেকেই বিভিন্ন স্থান থেকে ছাত্রছাত্রীরা ফুল হাতে খালি পায়ে এসেছিল শহিদমিনারে ভাষাশহিদদের শ্রদ্ধা জানানোর উদ্দেশ্যে। শিক্ষকদের নেতৃত্বে শহিদ মিনারের সামনে সকল ছাত্রছাত্রী সমবেত কণ্ঠে উচ্চারণ করেছিল একুশের সেই অমর গান- ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি।’

৩. পুষ্পাঞ্জলি নিবেদনের পর সকাল ৯ টায় শুরু হয়েছিল আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আবৃত্তি, স্বরচিত কবিতা প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। শহিদমিনারের সামনে আমগাছের নিচে ঘাসের গালিচায় আয়োজন করা হয়েছিল এ অনুষ্ঠান। প্রথমে প্রখ্যাত কবি-সাহিত্যিকদের আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা সংক্রান্ত কবিতা আবৃত্তি করেছিল ছাত্রছাত্রীরা। পরে স্বরচিত কবিতা পাঠে অংশ নেন চাত্রছাত্রীসহ শিক্ষকবৃন্দ। কবিতা পাঠ ও আবৃত্তি শেষে শুরু হয় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এ অনুষ্ঠানের মূল উপজীব্য ছিল জন্মভূমি ও মা-মাটির গান।

৪. সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পর সবশেষে ছিল আলোচনা সভা। প্রধান শিক্ষকের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন কয়েকজন শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রী। সবার বক্তব্য ছিল মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষার ওপর।

অত্যন্ত ভাবগম্ভীর পরিবেশে উদ্‌যাপিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের অনুষ্ঠানমালায় ছাত্রছাত্রীরা আগ্রহ সহকারে অংশগ্রহণ করেছি। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস নতুন প্রজন্মের কাছে প্রেরণার উৎস হিসেবে ধরা দিয়েছিল এই অনুষ্ঠান।

প্রতিবেদকের নাম ও ঠিকানা : সুজনা ইয়াসমিন, বিজ্ঞান বিভাগ, নবম শ্রেণি
প্রতিবেদনের শিরোনাম : মহারানি স্বর্ণময়ী স্কুল এন্ড কলেজে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদ্‌যাপিত
প্রতিবেদন তৈরির সময় : সন্ধ্যা ৭টা
প্রতিবেদনের তারিখ : ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১

No comments