বইয়ে খোঁজার সময় নাই, সব কিছু এখানেই পাই

নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে তোমার ভূমিকা বর্ণনা করে বন্ধুকে পত্র

তোমার গ্রামকে নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে তুমি যে ভূমিকা পালন করেছ তার বর্ণনা দিয়ে বন্ধুকে একটি পত্র লেখো। 

বা, গ্রামকে নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে মুক্ত করার ক্ষেত্রে নিজের ভূমিকার বর্ণনা দিয়ে বন্ধুর কাছে পত্র লেখো। 

বা, মনে করো, তুমি রিনি। তুমি বিজয়পুর গ্রামের বাসিন্দা। তোমার গ্রামকে নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে মুক্ত করার ক্ষেত্রে নিজের ভূমিকার বর্ণনা দিয়ে তোমার বন্ধু মিনিকে একটি পত্র লেখো। 


বিজয়পুর, নেত্রকোনা
২০শে এপ্রিল, ২০২১

প্রিয় মিলি,
শুভেচ্ছা নিও। আশা করি বাড়ির সবাইকে নিয়ে ভালো আছ। আজ আমি তোমাকে ‘আমার একটি উদ্যোগ’ সম্পর্কে জানাতে চাই। 

আমি জানি নিরক্ষরতা সম্পর্কে তোমার ভালো ধারণা আছে। সে নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে আমার প্রিয় গ্রামকে মুক্ত করার জন্য বেশ কিছুদিন খুব ব্যস্ত ছিলাম। আশা করি আমার কাজটি সম্পর্কে জানলে তুমি খুশি হবে এবং নিজেও অনুপ্রাণিত হবে। আমার প্রিয় গ্রামটি নিরক্ষরতার অভিশাপে অন্ধকারাচ্ছন্ন- এ ব্যাপারটি কোনোক্রমেই মেনে নিতে পারছিলাম না। তাই আমরা সমমনা কয়েকজন বন্ধু মিলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি যেভাবেই হোক গ্রামকে নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে মুক্ত করব। এজন্যে গ্রামের গুণীজনদের সাথে কথা বলি। তাঁরা আমাদের উদ্দেশ্যের কথা শুনে খুব খুশি হলেন এবং পরামর্শ দিলেন। আমাদের বাড়ির উঠোনে একটি নৈশবিদ্যালয় স্থাপন করেছি। সে এক দারুণ দৃশ্যের অবতারণা হয় যখন গ্রামের নিরক্ষর পুরুষ, ছেলে, বউ-ঝিরা পড়ালেখা করতে এ নৈশবিদ্যালয়ে আসে। আমরা বন্ধুরা প্রত্যেকেই নিজেদের অবস্থান থেকে নিরক্ষরতামুক্ত আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছি। তুমি নিজে দেখলে বুঝতে পারবে আমরা কী কাজ করছি। আমাদের এখানে এসে বেড়িয়ে যাও এবং দেখে যাও। আজ আর নয়। উত্তর দিও। 

ইতি— 
তোমার বন্ধু
রিনি

No comments