বইয়ে খোঁজার সময় নাই
সব কিছু এখানেই পাই

অনুচ্ছেদ : সাইবার অপরাধ

সাইবার অপরাধ


ইন্টারনেট ও তথ্যপ্রযুক্তির অগ্রগতির পাশাপাশি যে বিষয়টি বিস্তার লাভ করছে তা হলো সাইবার অপরাধ। সাইবার ক্রাইম বা সাইবার অপরাধ এমন একটি অপরাধ যা কম্পিউটার এবং কম্পিউটার নেটওয়ার্কের সাথে সম্পর্কিত। আধুনিক টেলিযোগাযোগ নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে অপরাধমূলক অভিপ্রায়ে বা কোনো ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে ইচ্ছাকৃত সম্মানহানি কিংবা সরাসরি শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি সাধিত হলে তা সাইবার অপরাধ বলে গণ্য হবে। সাইবার অপরাধ বিভিন্ন প্রকার হতে পারে। যেমন : হ্যাকিং, স্প্যামিং, সাইবার আক্রমণ, সাইবার হয়রানি, সাইবার চুরি, ফিশিং, পাইরেসি প্রভৃতি। তবে হ্যাকিং, কপিরাইট লঙ্ঘন, শিশু পর্নোগ্রাফির মতো অপরাধগুলো বর্তমানে উচ্চমাত্রা ধারণ করেছে। এর ফলে জাতির নিরাপত্তা ও আর্থিক স্বাস্থ্য হুমকির সম্মুখীন। ব্লু হোয়েল নামক অনলাইন গেম বর্তমানে আলোচিত সাইবার অপরাধ। এটি এর অনুসারীকে মৃত্যুর দিকে নিয়ে যায়। সাইবার অপরাধের কারণে বিশ্বের অনেক দেশের গোপন তথ্য ফাঁস হয়ে যাচ্ছে। অপরাধীচক্র ক্রমেই বিস্তার লাভ করছে। ব্যক্তিগত বা প্রাতিষ্ঠানিক দ্বন্দ্বের জের ধরে সম্মানহানি ঘটছে। হ্যাকিং-এর মাধ্যমে প্রয়োজনীয় তথ্য চুরি অথবা নষ্ট হচ্ছে। অন্যের অ্যাকাউন্ট থেকে বিশাল অঙ্কের টাকা চুরি করা হচ্ছে। সবচেয়ে বাজে ব্যাপার হলো ই-মেইল বা ব্লগ বা ওয়েবসাইট ব্যবহার করে নিরপরাধ ব্যক্তিকে হুমকি দেয়া, ব্যক্তির নামে মিথ্যাচার বা অপপ্রচার, নারী অবমাননা, যৌন হয়রানির মতো ঘটনাগুলো ঘটছে। সাইবার অপরাধ দমনের জন্য বিভিন্ন দেশ ইতিমধ্যে বিভিন্ন আইন প্রণয়ন করেছে। বাংলাদেশ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন-২০০৬ (সংশোধিত ২০১৩)-এর ৫৪ ধারা অনুযায়ী কম্পিউটার বা কম্পিউটার সিস্টেম ইত্যাদির অনিষ্ট সাধনে ই-মেইল পাঠানো, ভাইরাস ছড়ানো, সিস্টেমে অনধিকার প্রবেশ বা সেস্টেমের ক্ষতি করা অপরাধ। এর শাস্তি সর্বোচ্চ ১৪ বছর কারাদণ্ড এবং সর্বনিম্ন ৭ বছর কারাদণ্ড বা ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানার বিধান রয়েছে। সাইবার অপরাধ দমন করা না হলে ভবিষ্যতে ক্ষতির পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পাবে। কিন্তু এমনও অনেক দেশ আছে যারা অন্যদেশের সাইবার অপরাধীদের নিরাপদ আশ্রয় দিয়ে যাচ্ছে। ফলে অপরাধ ক্রমেই বাড়ছে। এতে ঐসব দেশগুলোর হয়তো সাময়িক স্বার্থ লাভ হচ্ছে কিন্তু একসময় তা ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াবে। অপরাধীদের উৎসাহ না দিয়ে বরং আইনের আওতায় নিয়ে আসা প্রয়োজন। সাইবার অপরাধ বিশ্বজুড়ে মানুষের জন্য একটি হুমকি হয়ে উঠেছে। কীভাবে তথ্য রক্ষা করা হচ্ছে ও অপরাধীরা তথ্য চুরি করার জন্য কী কৌশল ব্যবহার করছে সে সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টিই আজকের বিশ্বের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

No comments